‘আমি কোনো অপরাধ করিনি’- মালয়েশিয়ায় ভিডিও বার্তায় প্রবাসী রায়হান কবির

আলজাজিরা টেলিভিশনে প্রবাসীদের পক্ষে কথা বলে মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার হয়েছেন নারায়ণগঞ্জের বন্দরের যুবক রায়হান কবির। গ্রেফতারের আগে তিনি তার বক্তব্য ক্যামেরায় ধারণ করে ফেসবুকে আপলোড করেন।

তিনি তাতে বলেন, আজ ৯ জুলাই ভিডিওটি করছি। ভিডিওটি যখন দেখবেন তখন আমি অ্যারেস্টেড। আমি মোস্ট ওয়ান্টেড পার্সন। আমি জানি না কোন আইনে কোন অপরাধে আমি মোস্ট ওয়ান্টেড। আমি এখনও সেভ আছি। হয়ত কিছুক্ষণের মধ্যেই অ্যারেস্ট হয়ে যাব। তাই বলে যাচ্ছি, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী প্রবাসীদের অভিভাবক, বাংলাদেশের অভিভাবক শেখ হাসিনা ভিডিওটি দেখছেন- আমি কোনো অন্যায় করিনি, কোনো অপরাধ করিনি; যা দেখেছি শুধু তাই বলেছি, যা হয়েছে তাই বলেছি।’

‘যেখানে মালয়েশিয়ার গভর্মেন্ট কনফার্ম করেছিল যে লকডাউন টাইমে আনডকুমেন্টেড পার্সনগুলো গ্রেফতার হবে না। টেস্টের জন্য বাইরে আসতে পারবে। ১ তারিখে যখন অ্যারেস্ট করল, হাতে শিকল পরাল। তখন আমার খারাপ লেগেছে। সাধারণ মানুষ হিসেবে যেটা বলার আমি সেটিই বলেছি। যদি সত্য বলা আমার অপরাধ হয়, আমি অপরাধী।’

‘বাংলাদেশের অ্যাম্বাসির কাছে আমার অনুরোধ- দয়া করে দেশে ব্যাক করার জন্য যা যা পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন তাই করুন। আমি জানি না আমার সঙ্গে কী হতে যাচ্ছে! যদি জীবিত ফিরতে না পারি আপনারা জেনে রাখুন, এক কোটি প্রবাসীর জন্য এ জীবনটা ত্যাগ করা। মনে রাখবেন যদি আজ আমি হেরে যাই, যদি আমার সঙ্গে ইনজাস্টিস হয়- হেরে যাবেন আপনারা। হেরে যাবে বাংলাদেশ।’

রায়হান কবিরের ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বন্দরের কদমরসূল অঞ্চলের ২১নং ওয়ার্ডের শাহী মসজিদ এলাকার শাহ আলমের ছেলে রায়হান কবির। ২০১৪ সালে নারায়ণগঞ্জের সরকারি তোলারাম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন তিনি।

তিন বছর আগে কাজের উদ্দেশ্যে মালয়েশিয়া যান বলে সূত্র জানায়। সেখানে পার্টটাইম চাকরির পাশাপাশি পড়াশোনা করেন তিনি। বিএ পাস করার পর গত ঈদুল ফিতরের আগে মালয়েশিয়ার একটি কোম্পানিতে চাকরি নেন রায়হান।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরায় করোনাভাইরাস মহামারীতে মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের সঙ্গে সরকারের আচরণ নিয়ে সাক্ষাৎকার দেয়ার পর বিপত্তিতে পড়েন রায়হান কবির। তাকে গ্রেফতার করে ১৪ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *